বাংলাদেশের সংবিধান - Quiz Bee

Latest

Quiz Bee

একটি মুক্ত জ্ঞান চর্চা মঞ্চ

Tuesday, January 21, 2020

বাংলাদেশের সংবিধান

বাংলাদেশের সংবিধান
সংবিধান কী?
উত্তরঃ  সংবিধান হচ্ছে একটি রাষ্ট্রের প্রধান ও সর্বোচ্চ আইন।

সংবিধান কত প্রকার ও কী কী?
উত্তরঃ  সংবিধান ২ প্রকার। যথা: লিখিত সংবিধান ও অলিখিত সংবিধান।

বাংলাদেশের সংবিধান কোন ধরনের?
উত্তরঃ লিখিত সংবিধান।

কোন দেশের কোন লিখিত সংবিধান নেই?
উত্তরঃ ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড,স্পেন ও সৌদি-আরব।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় সংবিধান কোন দেশের?
উত্তরঃ ভারতের।

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট সংবিধান কোন দেশের?
উত্তরঃ আমেরিকার।

বাংলাদেশের সাংবিধানিক নাম কী?
উত্তরঃ  গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ (People Republic of Bangladesh).

গণ-প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আইন কী?
উত্তরঃ সংবিধান।

সংবিধান রচনা কমিটি কোন কোন দেশের সংবিধানের আলোকে বাংলাদেশের সংবিধান রচনা করেন?
উত্তরঃ ভারত ও ব্রিটেন।

বাংলাদেশের সংবিধান রচনার প্রথম পদক্ষেপ কী?
উত্তরঃ গণ-পরিষদ আদেশ জারি।

গণ-পরিষদ আদেশ জারি করা হয় কত সালে?
উত্তরঃ ২৩ মার্চ, ১৯৭২সালে।

গণ-পরিষদের প্রথম অধিবেশন বসে কবে?
উত্তরঃ ১০ এপ্রিল, ১৯৭২ সালে।

গণ-পরিষদের সদস্য ছিল কতজন?
উত্তরঃ ৪৩০ জন।

গণ-পরিষদের প্রথম স্পিকার কে ছিলেন?
উত্তরঃ শাহ আবদুল হামিদ।

গণ-পরিষদের প্রথম ডেপুটি স্পিকার ছিলেন?
উত্তরঃ মোহাম্মদ উল্ল্যাহ।

গণ-পরিষদের প্রথম অধিবেশনের সভাপতি কে ছিলেন?
উত্তরঃ মাওলানা আবদুর রশিদ তর্কবাগীশ।

সংবিধান রচনা কমিটির সদস্য কতজন ছিলেন?
উত্তরঃ ৩৪ জন।

সংবিধান রচনা কমিটির প্রধান কে ছিলেন?
উত্তরঃ ড.কামাল হোসেন।

সংবিধান রচনা কমিটির একমাত্র মহিলা সদস্য কে ছিলেন?
উত্তরঃ বেগম রাজিয়া বানু।

সংবিধান রচনা কমিটির একমাত্র বিরোধী দলীয় সদস্য কে ছিলেন?
উত্তরঃ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

‘খসড়া সংবিধান’ গণ-পরিষদে উত্থাপন করা হয় কবে?
উত্তরঃ ১২ অক্টোবর, ১৯৭২ সালে(২য় অধিবেশনে)।

‘খসড়া সংবিধান” গণ-পরিষদ উত্থাপন করেন কে?
উত্তরঃ ড.কামাল হোসেন।

গণ-পরিষদে ‘খসড়া সংবিধান” কবে গৃহিত ও কার্যকরী হয়?
উত্তরঃ ৪ নভেম্বর, ১৯৭২ সালে।

গণ-পরিষদ সদস্যরা হস্তলিখিত মূল সংবিধানের বাংলা লিপি ও ইংরেজি লিপিতে স্বাক্ষর করে কবে?
উত্তরঃ ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৭২ সালে।

হস্তলিখিত মূল সংবিধানে গণ-পরিষদের কতজন সদস্য স্বাক্ষর করেন?
উত্তরঃ ৩৯৯ জন।

হাতে লিখিত সংবিধান লিপিতে স্বাক্ষর করেনি কে?
উত্তরঃ সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

বাংলাদেশের প্রথম হস্তলিখিত সংবিধান কত পাতা ছিল?
উত্তরঃ ৯৩ পাতা।

বাংলাদেশের প্রথম হস্তলিখিত সংবিধানের মূল লেখক কে?
উত্তরঃ আবদুর রউফ।

বাংলাদেশের হস্তলিখিত সংবিধানের অঙ্গসজ্জা কে করেন?
উত্তরঃ শিল্পী জয়নুল আবেদীন।

সংবিধান দিবস পালিত হয় কবে?
উত্তরঃ৪ নভেম্বর।

বাংলাদেশের সংবিধান কার্যকরী হয় কোন তারিখে?
উত্তরঃ ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭২ সালে।

বাংলাদেশের সংবিধান কয়টি ভাষায় রচিত ছিল?
উত্তরঃ দুটি ভাষা । বাংলা ও ইংরেজি।

বাংলাদেশের সংবিধানে কতটি ধারা বা অনুচ্ছেদ আছে?
উত্তরঃ ১৫৩টি ধারা বা অনুচ্ছেদ আছে।

বাংলাদেশের সংবিধান কয়টি ভাগে বিভক্ত?
উত্তরঃ ১১টি ভাগে।

বাংলাদেশের সংবিধান কি দিয়ে শুরু ও শেষ হয়েছে?
উত্তরঃ প্রস্তাবনা দিয়ে বাংলাদেশের সংবিধান শুরু এবং ৭টি তফসীল দিয়ে শেষ হয়েছে?

বাংলাদেশের সংবিধান সুপরিবর্তীয় না দুষ্পরিবর্তনীয়?
উত্তরঃ দুষ্পরিবর্তনীয়।

সংবিধানের ব্যাখ্যায় বাংলা ও ইংরেজির মধ্যে বিরোধ দেখা দিলে কোনটি গ্রহনযোগ্য হবে?
উত্তরঃ বাংলা।

১৯৭৮ সালে বাংলাদেশের সংবিধান থেকে কোন ধারাটি উঠিয়ে দেয়া হয়েছিল?
উত্তরঃ ১২ নং ধারা।

১২ নং ধারায় কী উল্লেখ ছিল?
উত্তরঃ ধর্মনিরপেক্ষতা।

বাংলাদেশের সংবিধানে পুনরায় ১২ নং ধারাটি সংযোজন করা হয় কবে?
উত্তরঃ ২০১১ সালে(পঞ্চাদশ সংশোধনীর মাধ্যমে)

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইশতেহার ঘোষণা করা হয় কবে?
উত্তরঃ৩ মার্চ,১৯৭১ সালে পল্টন ময়দানে।

বাংলাদেশের সংবিধানের মূলনীতি কতটি?
উত্তরঃ ৪ টি।

২০১১ সালে পঞ্চদশ সংশোধনীর পর বাংলাদেশের সংবিধানের চারটি মূলনীতি কী?
উত্তরঃ (ক) ধর্মনিরপেক্ষতা (ইসলামকে রাষ্ট্র ধর্ম বহাল এবং অন্যান্য ধর্মের সমমর্যাদা নিশ্চিত করার বিধান (খ) জাতীয়তাবাদ (গ) গণতন্ত্র (ঘ) সমাজতন্ত্র।

বাংলাদেশের সংবিধান থেকে সমাজতন্ত্র ও ধর্ম নিরপেক্ষতা কোন সালে বাদ দেওয়া হয়েছিল?
উত্তরঃ ১৯৭৮ সালের ২য় ঘোষণা পত্র আদেশে।

বাংলাদেশের সংবিধান পুনরায় ধর্মনিরপেক্ষতা সংযোজন করা হয় কবে?
উত্তরঃ ২০১১ সালে পঞ্চদশ সংশোধনীতে।

‘ধর্মনিরপেক্ষতার’ পরিবর্তে সংবিধানে সন্নিবেশিত নীতি কী ছিল?
উত্তরঃ সর্বশক্তিমান আল্লাহর উপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস।

‘বাঙালি’ জাতীয়তাবাদের পরিবর্তে ‘বাংলাদেশি’ জাতীয়তাবাদের প্রবর্তন করা হয়েছিল কবে?
উত্তরঃ ৩ মার্চ, ১৯৭৮ সালে।

‘বাংলাদেশী’ জাতীয়তাবাদের পরিবর্তীতে ‘বাঙালি’ জাতীয়তাবাদ পুনরায় প্রবর্তন করা হয় কবে?
উত্তরঃ ৩০ জুন ২০১১ সালে।

সংবিধান অনুযায়ী ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে কারা?
উত্তরঃ জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকল নাগরিক।

সংবিধানের শুরুতে ‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম’ কত সালে গৃহীত হয়?
উত্তরঃ ২২ এপ্রিল, ১৯৭৭ সালে।

কবে থেকে কোন আদেশবলে সংবিধান রাষ্ট্র ধর্মসন্নিবেশিত হয়?
উত্তরঃ ১৯৮৪ সালের ৩০ নং আইনের ২ নং ধারা বলে।

কবে থেকে কোন আদেশবলে বাংলাদেশের নাগরিকগণ ‘বাংলাদেশী’ বলে পরিচিত হন?
উত্তরঃ ১৯৭৮ সালের ২য় ঘোষণাপত্রে আদেশ নম্বর ৪ এর ২য় তফসিল বলে।

কবে থেকে কোন আদেশবলে বাংলাদেশের নাগরিকগণ ‘বাংলাদেশী’ বলে পরিচিত হন?
উত্তরঃ ১৯৭৮ সালের ২য় ঘোষণাপত্রে আদেশ নম্বর ৪ এর ২য় তফসিল বলে।

সংবিধান সংশোধনের জন্য কী পরিমাণ সংসদ সদস্যের ভোটের প্রয়োজন?
উত্তরঃ দুই-তৃতীয়াংশ।

কোন দুটি কার্য সম্পাদনের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির প্রধান্মন্ত্রির সুপারিশ গ্রহণ প্রয়োজন হয় না।
উত্তরঃ সংবিধানের ৫৬ (৩) অনুচ্ছেদ অনুসারে প্রধান্মন্ত্রির নিয়োগ ও ৯৫ (১) অনুচ্ছেদ অনুসারে প্রধান বিচারপতির নিয়োগ।

বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী কোনো বাক্তিকে প্রেসিডেন্ট হতে হলে কমপক্ষে তার বয়স কত হতে হবে?
উত্তরঃ ৩৫ বছর।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে হলে কমপক্ষে বয়স কত হতে হবে?
উত্তরঃ ২৫ বছর।

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য ও স্পিকার হতে হলে বয়স কত হতে হবে?
উত্তরঃ ২৫ বছর।

একব্যক্তি কত মেয়াদকাল বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হতে পারবেন?
উত্তরঃ ২ মেয়াদকাল

রাষ্ট্রপতির পদের মেয়াদ কত বছর?
উত্তরঃ ৫ বছর।

রাষ্ট্রপতি কার নিকট পদত্যাগ করবেন?
উত্তরঃ স্পিকারের নিকট।

কার উপর আদালতের কোন এখতিয়ার নেই?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতির।

রাষ্ট্রপতির অনুপস্থিতিতে বা পদ শূন্য হলে কে রাষ্ট্রপতির মেয়াদ পালন করবেন?
উত্তরঃ স্পিকার।

সংসদীয় পদ্ধতিতে সর্বোচ্চ পদমর্যাদার অধিকারী কে?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

প্রধানমন্ত্রী কার নিকট পদত্যাগ করেন?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতির নিকট।

বাংলাদেশের প্রতিরক্ষা বিভাগের সর্ব অধিনায়ক কে?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

আইনসভা বা জাতীয় সংসদের সভাপতি কে?
উত্তরঃ স্পিকার।

সংসদ অধিবেশন আহ্বান,স্থগিত ও ভঙ্গ কে করেন?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

সংসদের এক অধিবেশনের সমাপ্তি ও পরবর্তী অধিবেশনের প্রথম বৈঠক কত দিনের মধ্যে হতে হবে?
উত্তরঃ ৬০ দিন।

সাধারণ নির্বাচনের কত দিনের মধ্যে সংসদ আহ্বান করতে হবে?
উত্তরঃ৩০ দিনের মধ্যে।

সংসদ অধিবেশনের কোরাম কত?
উত্তরঃ ৬০ জন।

একজন সংসদ সদস্য স্পিকারের অনুমতি ছাড়া কতদিন সংসদের বাহিরে থাকতে পারবে?
উত্তরঃ ৯০ দিন বা ৯০ কার্যদিবস।

কোন কারণে সংসদ ভেঙ্গে গেলে বা মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেলে কত দিনের মধ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচন দিতে হবে?
উত্তরঃ ৯০ দিনের মধ্যে।

রাষ্ট্রপতির নিকট বিল পেশ করার কতদিনের মধ্যে পাস করতে হয়?
উত্তরঃ ১৫ দিন।

রাষ্ট্রপতি যদি কোনো বিল পুনরায় সংসদের সংশোধনের জন্য পাঠায় তা ফেরত আসার কতদিনের মধ্যে পাস করতে হবে?
উত্তরঃ ৭ দিন।

রাষ্ট্রপতি কোন বিলে সম্মতি দানে বিলম্ব করতে পারবে না?
উত্তরঃ অর্থবিল।

কি কি কারণে রাষ্ট্রপতিকে অপসারণ করা সম্ভব?
উত্তরঃ শারীরিক ও মানসিক অসামর্থ্যের কারণে।

রাষ্ট্রপতি অপসারণ করতে কি পরিমাণ সংসদের ভোটের প্রয়োজন?
উত্তরঃ দুই-তৃতীয়াংশ।

কী কী কারণে রাষ্ট্রপতির অভিশংসন সম্ভব?
উত্তরঃ সংবিধান লংঘন বা গুরুতর অসদাচরণ।

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত কোনটি?
উত্তরঃ সুপ্রিম কোর্ট।

সুপ্রিম কোর্ট কতটি ভাগে বিভক্ত?
উত্তরঃ দুটি ভাগে, যথাঃ (ক) আপিল বিভাগ (খ) হাইকোর্ট বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি কে নিয়োগ দিয়ে থাকেন?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতির মেয়াদকাল কত?
উত্তরঃ ৬৭ বছর।

বাংলাদেশের প্রথম প্রধান বিচারপতি কে ছিলেন?
উত্তরঃ এ.এস.এম. সায়েম।

বাংলাদেশের বর্তমান প্রধান বিচারপতি কে?
উত্তরঃ মোঃ আব্দুল ওয়াহাব মিয়া (ভারপ্রাপ্ত) ।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং অন্যান্য নির্বাচন কমিশনারদের কে নিয়োগ দেন?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ কত বছর?
উত্তরঃ পাঁচ বছর।

বাংলাদেশের প্রথম প্রধান নির্বাচন কে ছিলেন?
উত্তরঃ বিচারপতি এম. ইদ্রিস।

বাংলাদেশের বর্তমান প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নাম কি?
উত্তরঃ কে এম নুরুল হুদা (দ্বাদশ)

কর্ম কমিশনের চেয়ারম্যানকে নিয়োগ করেন কে?
উত্তরঃ রাষ্ট্রপতি।

বাংলাদেশের সংবিধানের সাথে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র কবে সংযোজন করা হয়?
উত্তরঃ১৯৯৯ সালে।

নাগরিকদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার দায়িত্ব দিয়েছে কাকে?
উত্তরঃ হাইকোর্টকে।

বাংলাদেশে সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে?
উত্তরঃ প্রথমভাগের তৃতীয় অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন কোন অংশ সংশোধনের জন্য গণভোটের প্রয়োজন হয়?
উত্তরঃ সংবিধানের প্রস্তাবনা এবং ৮,৪৮,৫৬নম্বর অনুচ্ছেদ সংশোধনের জন্য কোন ভোটের প্রয়োজন হয়।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে?
উত্তরঃ ৩ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে আমার সোনার বাংলাকে জাতীয় সংগীত হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে?
উত্তরঃ ৪ নং অনুচ্ছেদে।

বাংলাদের নাগরিক বাংলাদেশী বলে পরিচিত হবে সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে?
উত্তরঃ ৬ (২) নং অনুচ্ছেদে।

জাতীয় জীবনের সর্বস্তরে মহিলাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার ব্যবস্থা সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত হয়েছে?
উত্তরঃ ১০ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে গণতন্ত্র মৌলিক মানবাধিকারের নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে?
উত্তরঃ ১১ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে কৃষক-শ্রমিক মুক্তির কথা বলা হয়েছে?
উত্তরঃ ১৪ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের প্রজাতন্ত্রের নাগরিকদের মৌলিক প্রয়োজনের ব্যবস্থা কোন অনুচ্ছেদে রাখা হয়েছে?
উত্তরঃ ১৫ নং অনুচ্ছেদে।

শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে কোন অনুচ্ছেদে?
উত্তরঃ ১৭ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের সকল সময় জনগণের সেবা করিবার চেষ্টা করা পর্যন্ত কর্মে নিযুক্ত প্রত্যেক ব্যক্তির কর্তব্য কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত আছে?
উত্তরঃ ২১ (১) নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে নির্বাহী বিভাগ হতে এর বিচার বিভাগের পৃথকীকরণ এর কথা বলা হয়েছে?
উত্তরঃ ২২ নং অনুচ্ছেদে।

সকল নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত?
উত্তরঃ ২৭ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে রাষ্ট্র গণজীবনের সর্বস্তরে নারী পুরুষের সমান অধিকার লাভ করবেন বলা আছে?
উত্তরঃ ২৮ (২) নং অনুচ্ছেদে।

অনুচ্ছেদ বলে রাষ্ট্র নারী-শিশু অনগ্রসর নাগরিকদের অগ্রগতির জন্য বিশেষ বিধান প্রণয়নের ক্ষমতা পায়?
উত্তরঃ ২৮ (৪) নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগ বা পদ লাভের ক্ষেত্রে সকল নাগরিকের জন্য সুযোগের ক্ষমতা থাকবে উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ২৯ (১) নং অনুচ্ছেদে।

কোন বিদেশী রাষ্ট্রের নিকট হতে কোন উপাধি সম্মান পুরষ্কারও ভূষণ গ্রহণের ব্যাপারে রাস্ট্রপতির পূর্বানুমোদনের কথা কোনো অনুচ্ছেদে বর্ণিত হয়েছে?
উত্তরঃ ৩০ নং অনুচ্ছেদে।

আইনের আশ্রয় লাভের অধিকার কোন অনুচ্ছেদে উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ৩১ নং অনুচ্ছেদে।

জীবন ও ব্যক্তি স্বাধীনতার অধিকার রক্ষিত রয়েছে কোন অনুচ্ছেদে?
উত্তরঃ ৩২ নং অনুচ্ছেদে।

গ্রেফতার ও আটক সম্পর্কিত রক্ষাকবচের কথা বলা হয়েছে কোন অনুচ্ছেদে?
উত্তরঃ ৩৩ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে সকল প্রকার জবরদস্তি শ্রম নিষিদ্ধ করা হয়েছে?
উত্তরঃ ৩৪ (১) নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুষ্ঠানে চলাফেরার স্বাধীনতা উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ৩৬ নং অনুচ্ছেদে।

সমাবেশের স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে কোন অনুচ্ছেদে?
উত্তরঃ ৩৭ নং অনুচ্ছেদে।

চিন্তা ও বিবেকের স্বাধীনতা’ দেয়া হয়েছে কোন অনুচ্ছেদে?
উত্তরঃ ৩৯ (১) নং অনুচ্ছেদে।

প্রত্যেক নাগরিকের বাক্ ও ভাবপ্রকাশের স্বাধিনতা’ কোন্ অনুচ্ছেদে উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ৩৯(২) ক অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে “সংবাপত্রের স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দান করা হয়?
উত্তরঃ ৩৯(২) খ নং অনুচ্ছেদে।

‘পেশা ও বৃত্তির স্বাধীনতা’ সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত আছে?
উত্তরঃ ৪০ নং অনুচ্ছেদে ।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে “ধর্মীয় স্বাধীনতার’’ কথা উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ৪১ নং অনুচ্ছেদে ।

সম্পত্তির অধিকার কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত আছে?
উত্তরঃ ৪২ নং অনুচ্ছেদে।

‘রাষ্ট্রপতি ক্ষমা প্রদর্শনের অধিকার’ কোন অনুচ্ছেদে বর্ণিত হয়?
উত্তরঃ ৪৯ নং অনুচ্ছেদে।

কোন অনুচ্ছেদে রাষ্ট্রপতির দায়মুক্তির কথা বর্ণিত হয়েছে?
উত্তরঃ ৫১ নং অনুচ্ছেদ।

কোন অনুচ্ছেদের বলে রাষ্ট্রপতির অভিশংসন সম্ভব?
উত্তরঃ ৫২ নং অনুচ্ছেদে।

প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীসভা সংক্রান্ত অনুচ্ছেদসমূহ কী কী?
উত্তরঃ ৫৫-৫৮ নং অনুচ্ছেদ।

কোন অনুচ্ছেদ রাষ্ট্রপতি সংক্রান্ত বর্ণনা আছে?
উত্তরঃ ৪৮ নং অনুচ্ছেদ।

সংবিধানের কত নং অনুচ্ছেদ মোতাবেক রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীপরিষদকে নিযুক্তি দেন?
উত্তরঃ ৫৬ (২) ধারা।

সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ ও বাণী সংক্রান্ত অনুচ্ছেদ কোনটি?
উত্তরঃ ৭৩ নং অনুচ্ছেদ।

“ন্যায়পাল নিয়োগের বিধান” সংবিধানের কততম অনুচ্ছেদে উল্লেখ আছে?
উত্তরঃ ৭৭ নং অনুচ্ছেদে।

জাতীয় সংসদের ন্যায়পাল আইন কবে পাস হয়?
উত্তরঃ ১৯৮০ সালে।

কবে মন্ত্রিসভা ন্যায়পাল নিয়োগে নীতিগতভাবে একমত প্রকাশ করে?
উত্তরঃ ২৫ মার্চ, ২০০১।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদ বলে রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারকপতি নিয়োগ দেন?
উত্তরঃ ৯৫ (১) নং অনুচ্ছেদ

বাংলাদেশের সংবিধানে কোন অনুচ্ছেদে নির্বাচন কমিশন’ গঠনের বিধান রাখা হয়েছে?
উত্তরঃ ১১৮ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানে কত নম্বর অনুচ্ছেদ অনুসারে ”সরকারি কর্ম কমিশন” (পি.এস.সি) গঠিত হয়েছে?
উত্তরঃ ১৩৭ নং অনুচ্ছেদে।

সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদে জরুরি অবস্থা ঘোষণার কথা বলা হয়েছে?
উত্তরঃ ১৪১ (ক) অনুচ্ছেদে।

সংবিধান সংশোধনী করা হয় কত নং অনুচ্ছেদের মাধ্যমে?
উত্তরঃ ১৪২ নং অনুচ্ছেদের মাধ্যমে।

ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি হয় কত সালে?
উত্তরঃ ২৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬ সালে।

No comments:

Post a Comment

Featured post

জাতীয় বাজেট: ২০২০-২০২১ অর্থবছর

২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট কততম বাজেট? উত্তর: ৪৯ তম বাজেট। বাংলাদেশে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটসহ ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট কততম বাজেট? ...