কোষবিদ্যা - Quiz Bee

Latest

Quiz Bee

একটি মুক্ত জ্ঞান চর্চা মঞ্চ

Thursday, December 19, 2019

কোষবিদ্যা

কোষবিদ্যা
কোষ কি?
উত্তর: জীব দেহের গঠন ও কার্যকারিতার একক, বৈষম্যভেদ্য পর্দা দ্বারা পরিবেষ্টিত প্রোটোপ্লাজম, যা আত্মপ্রজননশীল তাকে কোষ বলে।

সর্বপ্রথম কোষ আবিষ্কার করেন কে?
উত্তর: বিজ্ঞানী রবার্ট হুক।

কত সালে কোষ আবিষ্কার করা হয়?
উত্তর: ১৬৬৫ সালে।

কোষ অঙ্গাণু কি?
উত্তর: কোষ অভ্যন্তরে যে সকল থাকে তাকে কোষ অঙ্গাণু বলে। যেমন: ক্লোরোপ্লাস্ট, মাইটোকন্ড্রিয়া প্রভৃতি।

PPLO কি?
উত্তর: Pleuropneumonia Like Organiasm.

নিউক্লিয়াসের গঠন ও প্রকৃতি অনুযায়ী কোষ কক প্রকার ও কি কি?
উত্তর: দুই প্রকার। যথা: আদি কোষ ও প্রকৃত কোষ।

আদি কোষ বলতে কি বুঝ?
উত্তর: যে কোষের নিউক্লিয়াস সুগঠিত নয় এবং রাইবোসোম ছাড়া অন্য কোন কোষ অঙ্গাণু নেই তাকে আদি কোষ বলে।

প্রকৃত কোষ কাকে বলে?
উত্তর: যে কোষের নিউক্লিয়াস সুগঠিত এবং রাইবোসোম সহ অন্যান্য কোষ অঙ্গাণু কোষ থাকে তাকে প্রকৃত কোষ বলে।

উদ্ভিদ কোষ ও প্রাণী কোষের প্রধান পার্থক্য কি?
উত্তর: উদ্ভিদ কোষে কোষ প্রাচীর থাকে, প্রাণী কোষে কোষ প্রাচীর থাকে না।

কোষ প্রাচীর কি?
উত্তর: উদ্ভিদ কোষের চারপাশে অস্প্রোটোপ্লাজমীয় দৃঢ় মৃতপ্রাচীর বা আবরণীকে কোষ প্রাচীর বলে। এটি মূলত সেলুলুজ নির্মিত জড় ও শক্ত আবরণী।

উদ্ভিদ কোষের প্রধান উপাদান কি?
উত্তর: সেলুলোজ।

প্লাজমাডেজমা কি?
উত্তর: কোষ প্রাচীরের গাত্রে বিদ্যমান সূক্ষ্ম ছিদ্র, যার মাধ্যমে অপর কোষের প্রোটোপ্লাজমের সংযোগ স্থাপিত হয় তাকে প্লাজমাডেজমা বলে।

প্রোটোপ্লাস্ট কি?
উত্তর: কোষ প্রাচীরের অভ্যন্তরে বিদ্যমান সমুদয় পদার্থকে একত্রে প্রোটোপ্লাস্ট বলে।

প্রোটোপ্লাজম কি?
উত্তর: পানি, প্রোটিন, স্নেহ, শর্করা, নিউক্লিক এসিড দ্বারা গঠিত জৈব পদার্থকে প্রোটোপ্লাজম বলে। অর্থাৎ কোষ অভ্যান্তরে বিদ্যমান সজীব পদার্থই প্রোটোপ্লাজম। প্রোটোপ্লাজম জীবের প্রাণ কেন্দ্র স্বরূপ।

প্রোটোপ্লাজম কে আবিষ্কার করেন?
উত্তর: পারকিনজি।

প্রোটোপ্লাজম কত সালে আবিষ্কার করা হয়?
উত্তর: ১৮৪০ সালে।

প্রোটোপ্লাজমকে কোষের ভৌত ভিত্তি হিসেবে উল্লেখ্য করেন কে?
উত্তর: বিজ্ঞানী T.H Huxley.

সাইটোপ্লাজম কি?
উত্তর: কোষ পর্দা হতে নিউক্লিয়াস পর্যন্ত বিস্তৃত জেলীয় ন্যায় আঠালো, স্বচ্ছ, অর্ধতরল ও দানাদার প্রোটোপ্লাজমীয় অংশকে সাইটোপ্লাজম বলে।

সাইটোপ্লাজমীয় অঙ্গাণুসমূহ বা কোষীয় অঙ্গাণুসমূহ গুলো হলো?
উত্তর: (১) প্লাস্টিড, (২) মাইটোকন্ড্রিয়া, (৩) গলজি বস্তু, (৪) অন্তঃ প্লাজমীয় জালিকা, (৫) রাইবোজোম, (৬) লাইসোজোম, (৭) মাইক্রোটিউবিউলাস ইত্যাদি।

মাইটোকন্ড্রিয়া কি?
উত্তর: কোষের অভ্যন্তরে দন্ডাকার, দানাদার সুত্রবৎ, বৃত্তাকার বস্তুগুলোকে মাইটোকন্ড্রিয়া বলে। মাইটোকন্ড্রিয়াকে উদ্ভিদের পাওয়ার হাউস বলা হয়।

মাইটোকন্ড্রিয়া কে আবিষ্কার করেন?
উত্তর: বিজ্ঞানী বেন্ডা।

মাইটোকন্ড্রিয়া কত সালে আবিষ্কার করা হয়?
উত্তর: ১৮৯৭ সালে।

নিউক্লিয়াস কি?
উত্তর: প্রাণীকোষের সাইটোপ্লাজমের কেন্দ্রে অবস্থিত বা উদ্ভিদ কোষের একপার্শ্বে অবস্থিত অপেক্ষাকৃত ঘন, বিশেষগুণ সম্পন্ন গোলাকার অংশ কে নিউক্লিয়াস বলে।

নিউক্লিয়াস কে আবিষ্কার করেন?
উত্তর: বিজ্ঞানী রবার্ট ব্রাউন।

নিউক্লিয়াস কত সালে আবিষ্কার করা হয়?
উত্তর: ১৮৩৩ সালে।

প্লাজমা মেমব্রেন কাকে বলে?
উত্তর: জড় কোষ প্রাচীরের নিচে দ্বি-স্তর বিশিষ্ট লিপোপ্রোটিন নির্মিত সজীব আবরণীকে প্লাজমা মেমব্রেন বলে।

ক্রোমোজোম কি?
উত্তর: কোষের নিউক্লিয়াসে বিদ্যমান বংশগতির ধারক ও বাহক উপাদানকে ক্রোমোজোম বলে।

সেন্ট্রোমেয়ার কি?
উত্তর:  প্রোটিন দ্বারা নির্মিত ক্রোমোজোমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যা কোষ বিভাজনে অগ্রগামী ভূমিকা পালন করে।

কোষ বিভাজন কাকে বলে?
উত্তর: যে প্রক্রিয়ায় একটি মাতৃকোষ বিভাজিত হয়ে দুই বা ততোধিক আপত্য কোষ উৎপন্ন করে তাকে কোষ বিভাজন বলে।

অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন কি?
উত্তর: যে কোষ বিভাজন প্রক্রিয়ায় একটি মাতৃকোষ দ্রুত সরাসরি বিভাজিত হয়ে দুইটি আপত্য কোষ সৃষ্টি করে তাকে অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন বলে।

মাইটোসিস কোষ বিভাজন কি?
উত্তর: যে কোষ বিভাজন প্রক্রিয়ায় একটি মাতৃকোষের নিউক্লিয়াস ও ক্রোমোজোম উভয়েই একবার করে বিভাজিত হয়ে দুইটি আপত্য কোষ উৎপন্ন করে এবং প্রত্যেক অপত্য কোষে ক্রোমোজোম সংযোগ মাতৃকোষের সমান থাকে তাকে মাইটোসিস কোষ বিভাজন বলে।

মাইটোসিসি কোষ বিভাজনকে সমীকরণিক বিভাজন বলা হয় কেন?
উত্তর: মাইটোসিস কোষ বিভাজনে ফলে সৃষ্ট অপত্য কোষসমূহে ক্রোমোজোম সংখ্যা মাতৃকোষের সমান থাকে তাই একে সমীকরণিক বিভাজন বলে।

মেটাকাইনেসিস কাকে বলে?
উত্তর: মাইটোসিস কোষ বিভাজনের মেটাফেজ দশায় ক্রোমোজোমসমূহ বিষুবীয় অঞ্চলে বিন্যস্ত হওয়াকে মেটাকাইনেসিস বলে।

মিয়োসিস কোষ বিভাজন কাকে বলে?
উত্তর: যে কোষ বিভাজন প্রক্রিয়ায় একটি মাতৃকোষের নিউক্লিয়াস দুইবার কিন্তু ক্রোমোজোম মাত্র একবার বিভাজিত হয়ে চারটি অপত্য কোষ উৎপন্ন করে। ফলে প্রত্যেক অপত্য কোষে ক্রোমোজোম সংখ্যা মাতৃকোষের অর্ধেক হয়ে যায় তাকে মিয়োসিস কোষ বিভাজন বলে।

মিয়োসিস কোষ বিভাজনকে হ্রাসমূলক বিভাজন বলা হয় কেন?
উত্তর: মিয়োসিস কোষ বিভাজনের ফলে সৃষ্ট অপত্য কোষসমূহে ক্রোমোজোম সংখ্যা মাতৃকোষের অর্ধেক হওয়ায় মিয়োসিস কোষ বিভাজনকে হ্রাসমূলক বিভাজন বলে।

ক্রসিং ওভার কাকে বলে?
উত্তর: মিয়োসিস কোষ বিভাজনে প্যকাইটিন উপ-পর্যায়ে একজোড়া হমোলোগাহ ক্রোমোজোমের দুইটি নন-সিস্টার ক্রোমোটিডের পারস্পরিক স্থান বিনিময়কে ক্রসিং ওভার বলে।

একক পর্দা বলতে কি বুঝ?
উত্তর: কোষের কোষ ঝিল্লি এবং অন্যান্য কোষ অঙ্গানুর আবরণীয় গঠনগত উপাদান লিগো-প্রোটিন হওয়ায় একে একক পর্দা বলে।

হিস্টোন ও নন-হিস্টোন প্রোটিন কি?
উত্তর: ক্রোমাজোম গঠনকারী দুই ধরনের প্রোটিন।

স্পিন্ডল যন্ত্র কাকে বলে?
উত্তর: কোষ বিভাজনের সময় আকর্ষণ তন্তু নিয়ে যে বিশেষ গঠন গঠিত হয় তাকে স্পিন্ডল যন্ত্র বলে।

No comments:

Post a Comment

Featured post

জাতীয় বাজেট: ২০২০-২০২১ অর্থবছর

২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট কততম বাজেট? উত্তর: ৪৯ তম বাজেট। বাংলাদেশে অন্তর্বর্তীকালীন বাজেটসহ ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট কততম বাজেট? ...